ফুটপাথের আলোয় পড়াশোনা করে দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় ৬৮% নম্বর, নগর নিগাম থেকে দেওয়া হলো ফ্ল্যাট | Manikchak News - Manikchak News

Manikchak News

ফুটপাথের আলোয় পড়াশোনা করে দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় ৬৮% নম্বর, নগর নিগাম থেকে দেওয়া হলো ফ্ল্যাট | Manikchak News

ফুটপাথে পড়াশোনা দশম পরীক্ষায় সর্বপ্রথম

bharti khandekar got 68% in 10th exam at indore in mp


মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় এক শ্রমিকের মেয়ে তাঁর বাবা মায়ের মুখ উজ্জ্বল করেছে। দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় ৬৮% নম্বর পেয়ে সর্বপ্রথম হয়েছেন ইন্দোরের ভারতী খান্দেকর। খুব ভালো রেজাল্ট করে সবাইকে রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছেন ভারতী খান্দেকর। কঠিন পরিস্থিতিতে নিজের পরিবারের সাথে থেকে পড়াশোনা করে দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় ৬৮% নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। এমন অপ্রত্যাশিত রেজাল্ট দেখে নগর নিগমের তরফ থেকে ভারতী খান্দেকরকে একটি ফ্ল্যাট দেওয়া হয়েছে। সাথে তাঁর পড়াশোনার সমস্ত দায় দায়িত্ব নগর নিগাম বহন করবে।

ইনডোরে নগর নিগম চৌরাস্তার শিবাজী মার্কেটে ভারতী তার বাবা মা এবং দুই ছোট ভাইয়ের সাথে কয়েক বছর ধরে বসবাস করেন। রাস্তার আলোর সাহায্য নিয়েই ভারতী পড়াশোনা করছিলেন। ফুটপাথে থেকেও বোরো স্বপ্ন পূরণের আশায় তিনি পরাশোনা করছেন। ভারতীয় ইচ্ছা বড়ো হয়ে এই এ এস অফিসার হবেন আর নিজের শহর এবং দেশের নাম উজ্জ্বল করবেন। সাথে শ্রমিক পরিবারকে সাহায্য করার চেষ্টা করবেন।

ভারতীর বাবা দশরথ খান্দেকর কখনো সাহস হারাননি। প্রচুর পরিশ্রম করে সন্তানদের পালনের সহিত তাদের পড়াশোনার সমস্ত খরচ বহন করছিলেন। তার ইচ্ছা তিন সন্তানকেই পড়াশোনা করিয়ে মানুষ করবেন।যতদিন কাজ করার ক্ষমতা থাকবে ততদিন কাজ করে সন্তানদের পড়াশোনা চালিয়ে যাবেন। তিনি ভারতীর সাথে সাথে বাকি দুই ছেলেকেও শিক্ষিত করতে চাইছেন। ফুটপাথে থেকে ভারতীর এমন শিক্ষা অনুরাগ সত্যি প্রশংসনীয়। তার বাবা জানান, নগর নিগমের কমিশনার প্রতিভা পাল তার মেয়ের পড়াশোনার সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন এবং থাকার জন্য একটি ফ্ল্যাট প্রদান করেছেন।


অনেক সময় দেখা যায় স্কুল, টুশন গিয়েও অনেকে ভালো রেজাল্ট করতে পারে না। কিন্তু ভারতী শ্রমিক পরিবারের মেয়ে হয়ে সময়কে ঠিকভাবে গুরুত্ব দিয়ে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে অসাধারণ ফলপ্রাপ্তি করেছেন। যারা দিন আনে দিন খাই তাদের পক্ষে ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা করার তেমনটা সুযোগ সুবিধা থাকে না। কারণ তিনবেলা যারা ঠিকমতো পেটপুরে খেতে পাইনা তারা কিকরে উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন দেখবে ? কিন্তু ভারতী রাস্তায় বাধা হয়ে দাঁড়ানো সমস্ত দুর্বলতাকে উপেক্ষা করে এগিয়ে গিয়েছেন।
Previous article
Next article

Leave Comments

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Articles Ads

Articles Ads 1

Articles Ads 2

Advertisement Ads